রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১,  ৪ আশ্বিন ১৪২৮,  Sunday, September 19, 2021


অনলাইন ডেস্ক

আপডেট : 1 month ago

Mon, Aug 2, 2021 4:02 AM

 

মৃত্যুর সময়ও হাসছিলেন 'কৌতুক' অভিনেতা ফজল

Card image cap

আফগানিস্তানের একজন পুলিশ কর্মকর্তার নাম ফজল মোহাম্মদ। তবে তিনি ‘খাসা জওয়ান’ নামে বেশি পরিচিত। তাঁর পুলিশ পরিচয়ের চেয়েও আরও একটা বড় পরিচয় ছিল, তিনি সবাইকে হাসাতে পারতেন। অনলাইনে হাস্যরসাত্মক নানান ভিডিও পোস্ট করার জন্য আফগানদের কাছে তিনি ‘কৌতুক অভিনেতা’ হিসেবেই বেশি পরিচিতি অর্জন করেন।
তবে সেসব এখন পুরনো। কারণ তাঁর সব কৌতুক চিরতরে স্তব্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ফজলকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে হত্যা করেছে তালেবানরা। প্রথমে তা অস্বীকার করলেও পরে গত সপ্তাহে এ-সংক্রান্ত একাধিক ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়লে ফজলকে হত্যার কথা স্বীকার করে তালেবান। তাঁকে তালেবান বিরুধি আখ্যা দিয়ে তালেবানের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ফজল তাদের (তালেবানদের) বিরুদ্ধে যুদ্ধে নেমেছিল তাই তাঁকে হত্যা করা হয়েছে। মৃত্যুর আগে প্রকাশিত এক ভিডিওতে দেখা যায়, তাঁকে চড় মারছে তালেবান সদস্যরা তবে তিনি বিচলিত ছিলেন না।

একটি ভিডিওতে দেখা যায়, ফজলের দুই হাত পিছমোড়া করে বাঁধা অবস্থায় তিনি একটি গাড়িতে বসে আছেন। তাঁর দুই পাশে তালেবানরা বসা। যারা তাঁকে বারবার চড় মারছিল। তবে চড় কিংবা অস্র কোন কিছুতেই তিনি কোন রকম চিন্তিত ছিলেন না বরং তাঁকে অনেকটা তার নিজের লুকেই দেখা গেছে, যেভাবে তিনি এতদিন সবাইকে আনন্দ দিয়ে আসছিলেন সেভাবেই। মৃত্যুর কোন ভয় তাঁর চেহারাতে ছিল না, বরং তিনি যেন তালেবানদের মার খেয়েও হাসিমুখে ছিলেন। এরপর অপর একটি ভিডিওতে ফজলের মরদেহ দেখা যায়। তালেবানদের অভিযোগের জবাবে, ফজলের সহকর্মী পুলিশ কমান্ডার সাইলাব বলেন, ফজল কখনো তালেবানদের বিরুদ্ধে যুদ্ধক্ষেত্রে মোতায়েন ছিলেন না। তিনি বলেন, এই খুবই হাসিখুশি আর মজাদার লোক ছিলেন, আর তাই যুদ্ধের চেয়ে তিনি বরং বিভিন্ন তল্লাশিচৌকিতে পুলিশ সদস্যদের আনন্দ দিতেন।